সংবাদ

২৫০ টাকায় ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবা দিচ্ছে বিটিসিএল

মাত্র ২৫০ টাকা থেকে শুরু করে দেশজুড়ে বাসাবাড়ি সহ সকল প্রতিষ্ঠানের জন্য; দ্রুত গতির ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সার্ভিস প্রদান করছে রাষ্ট্রয়ত্ত টেলি-কমিউনিকেশন কোম্পানি বিটিসিএল। ১৬ জুলাই থেকে পুরো দেশ ব্যাপি তাদের এই স্বল্প মূল্যের ইন্টারনেট সেবা প্যাক গুলো দেশের সব মানুষের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয়।

দেশের অগ্রগতিতে ইন্টারনেট অপরিহার্য এই বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে; বিটিসিএল তাদের এডিএসএল (তামার তার) এবং জিপন (ফাইবার অপটিক) ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট প্যাকগুলোর দাম অর্ধেকেরও বেশি হারে কমিয়েছে। ১ এমবিপিএস ব্যান্ডউইথের দাম ২০১১ সালের এপ্রিলে ১২ হাজার টাকা, ২০১২ সালের এপ্রিলে ৮ হাজার টাকা, ২০১৪ সালের এপ্রিলে ২ হাজার ৮০০ টাকা এবং ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে সর্বোচ্চ ৯৬০ টাকা এবং সর্বনিম্ন ৩৬০ টাকায় কমিয়ে আনা হয়। সর্বশেষ এ বছর ২৭ জুন এক এমবিপিএএস ব্যান্ডউইথের সর্বনিম্ন চার্জ ৩৬০ টাকা থেকে ১৮০ টাকায় নির্ধারণ করা হয়েছে। আর এই দাম কমের সুবিধাটা একজন ইন্টারনেট ব্যবহারকারি পুরোপুরি ভাবে নিতে পারবেন বিটিসিএল নতুন প্যাকগুলি থেকে।

মাঝখানে ২-৩ বছর বিটিসিএল  এর অতিরিক্ত লাইন চার্জ (প্রায় ১৫০ টাকা), ইন্টারনেট প্যাক এর সাথে অতিরিক্ত ভ্যাট এবং চার্জের কারনে এডিএসএল “১ এমবিপিএস” এর প্যাকটির দাম মাসে প্রায় ৭০০ টাকার বেশি পরে যেত। আর এর মধ্যে বেসরকারি ব্রডব্যান্ড কোম্পানির দৌরাত্ব বেরে যায় তাদের তুলনামূলক সাশ্রয়ী প্যাকগুলোর কারনে। আর এর কারনে বিটিসিএল বিগত বছর গুলোতে বহু ইন্টারনেট এর গ্রাহক হারায়।

পূর্বের গ্রাহক রিভিউ

বিগত কিছু বছর আগের বগুড়া সদরের একজন বিটিসিএল এর (১ এমবিপিএস) এডিএসএল ইন্টারনেট সেবা ব্যাবহার করেছেন এমন একজনের সাথে কথা বলে জানা যায়; বিটিসিএল এর সংযোগ দেশব্যাপী অনেক বিস্তৃত হওয়ার কারনে নিঃসন্দেহে এটা অনেক শক্তিশালী একটি কোম্পানি এবং এর স্পিডও তুলনামূলক খারাপ নয়। তবে মাসে কিছু সময় লাইন ড্রপ হত। তবে সেই গ্রাহকের কাছে লাইন ফি এবং প্যাকেজের মূল্য অতিরিক্ত মনে হয়েছিল।

নতুন এডিএসএল প্যাকেজএর মূল্য

১ এমবিপিএস এডিএসএল প্যাকের মূল্য ৫০০ টাকা+ভ্যাট থেকে কমিয়ে ভ্যাটসহ ২৫০ টাকা করা হয়েছে। ১.৫ এমবিপিএস এডিএসএল প্যাকের মূল্য ৭০০ টাকা+ভ্যাট থেকে হ্রাস করে ভ্যাটসহ মাত্র ৩৫০ টাকা করা হয়েছে। এখানে অভিন্ন কপার তারের ভেতর দিয়ে টেলিফোন এবং ইন্টারনেট উভয় সেবাই পাওয়া যাবে।

What is G-PON: PON or passive optical network is a telecommunications technology used to provide fiber to the end consumer, both domestic and commercial.G-PON stands for Gigabit Passive Optical Networks. G-PON supports high-bandwidth transmission to break down the bandwidth bottleneck of the access over twisted pair cables. GPON supports the long-reach (up to 20 km) service coverage to overcome the obstacle of the access technology over twisted pair cables and reduce the network nodes.

নতুন জিপন প্যাকেজের মূল্য

২ এমবিপিএস জিপন প্যাক এর মূল্য ৭৫০ টাকা + ভ্যাট থেকে কমিয়ে ভ্যাটসহ ৩৫০ টাকা করা হয়েছে। ৪ এমবিপিএস প্যাক বন্ধ করে ভ্যাটসহ ৫ এমবিপিএস এর দাম ভ্যাটসহ ৫০০ টাকা করা হয়েছে। অনুরূপ ১০ এমবিপিএস এর দাম ২ হাজার টাকা + ভ্যাট থেকে কমিয়ে ভ্যাটসহ ৭৫০ টাকা করা হয়েছে এবং ২০ এমবিপিএস প্যাক এর দাম ভ্যাটসহ ১২০০ টাকা করা হয়েছে।

তবে জিপন কেবল কিছু শহরের জন্য। পুরো দেশব্যাপি এডিএসএল এর মত এখনও এটি এতটা ছড়িয়ে পরেনি।

নতুন লাইনের ফি

অনেকে বিটিসিএল এর লাইন নেয়ার ক্ষেত্রে কত ফি সেটি হয়ত জানেন না। তাদের জন্য জানাচ্ছি বিটিসিএল এর স্থান ভেদে লাইন এর জন্য আলাদা আলাদা ফি নির্ধারণ করা আছে। ঢাকা,গাজীপুর সদর এবং নারায়নগঞ্জ সদরের জন্য লাইন ফি ১০০০ এবং সিকিউরিটি ডিপোজিট ১০০০ টাকা মোট ২০০০ টাকা দিয়ে আপনাকে নতুন  লাইন নিতে হবে। চট্টগ্রামের জন্য লাইন ফি ৫০০ এবং সিকিউরিটি ডিপোজিট ৫০০ টাকা মোট ১০০০ টাকা দিয়ে আপনাকে নতুন  লাইন নিতে হবে। এবং অন্যান্য জেলা এবং উপজেলা যেখানে লাইন আছে সেখানে আপনাকে লাইন ফি ৩০০ এবং সিকিউরিটি ডিপোজিট ৩০০ টাকা মোট ৬০০ টাকা দিয়ে আপনাকে নতুন  লাইন নিতে হবে।

২ Comments

২ Comments

  1. শুভ

    আগস্ট ১৮, ২০১৯ at ৩:০৬ অপরাহ্ণ

    বগুড়ায় লাইন নিতে খরচ কত?

    • নিউজ ডেস্ক ,ফন্ড অফ টেক

      আগস্ট ১৯, ২০১৯ at ৪:২৯ অপরাহ্ণ

      অফিসিয়ালি তো ৬০০ টাকা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Most Popular

ফন্ডঅফটেক একটি বাংলাদেশ ভিত্তিক টেকনোক্র্যাট নিউজ পোর্টাল। আমরা এই প্ল্যাটফর্মে বিজ্ঞান এবং প্রযুক্তি ভিত্তিক মানসম্মত কনটেন্ট প্রকাশ নিয়মিত প্রকাশ করার চেষ্টা করে থাকি।

আমাদের স্লোগান, 'প্রযুক্তি সংবাদ, যেটা মূল্য রাখে।'

To Top