ডিভাইস রিভিউ

হ্যান্ডস অন রিভিউ : Walton Primo E9

0

বাজারে বাজেট এর ভেতরে ১জিবি র‍্যাম এবং ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা বিশিষ্ট নতুন স্মার্টফোন নিয়ে এসেছে ওয়ালটন।  আর এটি হল ওয়ালটন প্রিমো ই৯ (Walton Primo E9)। ব্লাক এবং ব্লু এর পাশাপাশি একটি প্রিমিয়াম গোল্ডেন কালার এডিশন নিয়ে মাত্র ৩৮৯৯ টাকায় তারা বাজারে নিয়ে  এসেছে নতুন এই স্মার্টফোনটি। স্মার্টফোনটির প্রিমিয়াম গোল্ডেন কালার এডিশনে পাওয়া যাবে ইলেক্ট্রোলাইজড নিকেল ফিনিস। আর এর দাম কিছুটা বেশি হতে পারে। ডিভাইসটি ৪জি সাপোর্টেড নয়।  

একনজরে Walton Primo E9

  • ১.৩ গিগাহার্জ কোয়াড কোর প্রসেসর
  • এন্ড্রয়েড অরিও(৮.১) গো এডিশন
  • ১ জিবি র‍্যাম এবং ৮ জিবি রম
  • ৫ মেগাপিক্সেল রিয়ার এবং ২ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা
  • ১৭০০ এমএএইচ ব্যাটারি     

Walton Primo E9 বক্স এর ভেতর যা যা পাওয়া যাবে

  • ওয়ালটন প্রিমো ই৯ ডিভাইসটি
  • চার্জার অ্যাডাপ্টার
  • ইউএসবি কেবল
  • ইয়ারফোন
  • প্রটেকশন গ্লাস
  • ওয়ারেন্টি কার্ড
  • সেফটি ইন্সট্রাকশন

ডিসপ্লে

ডিভাইসটিতে ব্যাবহার করা হয়েছে ৪.৫ ইঞ্চি  FWVGA ডিসপ্লে । সাধারন ব্যাবহার এর জন্য এটি তুলনামূলকভাবে ভালো পারফর্ম করবে।  এই ডিসপ্লেটির রেজুলেশন ৪৮০*৮৫৪ পিক্সেল।

ডিজাইন ও কালার

নিজের আকর্ষণীয় ব্যাক্তিসত্ত্বাকে ফুটিয়ে তুলতে প্রিমিয়াম গোল্ডেন কালার এর পাশাপাশি স্মার্টফোনটি বাজারে পাওয়া যাবে আরও দুইটি কালারে; এগুলো হলঃ ব্লাক এবং ব্লু ।  রিয়ার প্যানেল প্লাস্টিক ম্যাট ফিনিস হওয়ার কারনে স্মার্টফোনটির গ্রিপ হবে খুব ভালো। 

হার্ডওয়্যার

ডিভাইসটিতে ব্যাবহার করা হয়েছে মিডিয়াটেক এর একটি কোয়াড কোর প্রসেসর (mt6580), যার বাজ স্পীড ১.৩ গিগাহার্জ।  টুকটাক মাল্টি টাস্কিং এর জন্য দেয়া হয়েছে একটি ডিডিআর৩ ১জিবি র‍্যাম। ডিভাইসটিতে থাকছে ৮ জিবি রম। এই ৮ জিবি এর ভেতর প্রথম প্রথম ব্যাবহারকারিরা ৫.৫ জিবি ব্যাবহার এর মত ফাকা পাবেন।  ডিভাইসটিতে ৬৪ জিবি পর্যন্ত এক্সটারনাল মেমোরি ব্যাবহার করা যাবে।

অপারেটিং সিস্টেম এবং ইউআই

একরকম লাইট স্পেসিফিকেশন এর জন্য এতে দেয়াও হয়েছে এন্ড্রয়েড এর লাইট ভার্সন; আর তা হল এন্ড্রয়েড ‘অরিও(৮.১) গো এডিশন’।  ওয়ালটন প্রিমো ই৯ ডিভাইসটিতে প্রি-ইন্সটলড অবস্থায় গুগল এর বিভিন্ন গো ভার্সন অ্যাপও পাওয়া যাবে।

ইউআই 

ক্যামেরা

আপনার অসামান্য মুহূর্ত গুলোকে যেন সহজেই বন্দি করে ফেলা যায়; সে জন্য ওয়ালটন প্রিমো ই৯ ডিভাইসটিতে ৫ মেগাপিক্সেল রিয়ার এবং ২ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা দেয়া হয়েছে।  আর এই রিয়ার প্যানেল এর ৫ মেগাপিক্সেল বিএসআই সেন্সরযুক্ত ক্যামেরা এর সাথে থাকছে একটি এলইডি ফ্ল্যাশ।

ক্যামেরা ইউআই 

মাল্টিমিডিয়া

ডিভাইসটি দিয়ে এইচডি মুভি , ভিডিও এবং গানের অভিজ্ঞতা খুবই ভালোভাবে নেয়া যাবে।  

ওটিএ

ওটিএ আপডেট ফিচার থাকার কারনে যদি ওয়ালটন কোন সফটওয়্যার আপডেট ফোনটির জন্য আনে; তবে তা অনায়াসেই পাওয়া যাবে।  

এই ছিল ওয়ালটন প্রিমো ই৯ বাজেট এন্ড্রয়েড স্মার্টফোনটির ছোট্ট রিভিউ।  আশা করি এই স্মার্টফোনটি সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু এই আর্টিকেল থেকে জানতে পেরেছেন।  আর আপনার যদি কোন মতামত বা জিজ্ঞাসা থাকে, তা অবশ্যই নিচে জানাতে ভুলবেন না।

    

তৌহিদুর রহমান মাহিন
Technology can be a very good hobby of somebody. I'm a little too much

    ডট ও কিউ রোবট : খেলায় খেলায় প্রোগ্রামিং শেখা!

    Previous article

    গুগল ও ফেসবুক বিজ্ঞাপন সেবা : অনলাইন মার্কেটিং এর দুই জায়ান্ট

    Next article

    You may also like

    Comments

    Leave a reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *