ডোমেইন রিসেলার : অনলাইনে নাম বিক্রয়ের লাভজনক ব্যবসা!

আপনি যদি অনলাইনে ওয়েব হোস্টিং ব্যবসা করেন, তবে তার সাথে আপনাকে আরেকটি সেবা রাখতে হবে, সেটি হচ্ছে ডোমেইন নাম রেজিস্ট্রেশন সেবা। সার্ভারে হোস্ট করা ওয়েবসাইট এবং গ্রাহক কম্পিউটার  এর ভেতর সংযোগ ঘটায় এই ডোমেইন।  

ডোমেইন কি? 

একটি ওয়েবসাইট এর জন্য ডোমেইন নাম বা ঠিকানা দুইভাবে কাজ করে। প্রথমত ডোমেইনটি সেই ওয়েবসাইট এর অথোরিটি তথা পরিচালনা পরিষদ এর পরিচয় বহন করে। দ্বিতীয়ত ডোমেইন ঠিকানাটি গ্রাহকের জন্য সেই ওয়েবসাইটটি পরিদর্শন করা সহজ করে দেয়। একটি সাধারন পিসি ইন্টারনেটে এক্সেস করে বিভিন্ন ওয়েবসাইট থেকে তার সেবা নিতে চায়; আর সার্ভারে একেকটি ওয়েবসাইট হোস্ট করা থাকে। এই সার্ভারে হোস্ট করা ওয়েবসাইট এবং গ্রাহক কম্পিউটার তথা পিসি এর ভেতর সংযোগ ঘটায় একেকটি ডোমেইন ঠিকানা। যেমন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের সাথে সার্ভারে হোস্ট করা আমাদের এই ওয়েবসাইটের ভিতর সংযোগ ঘটিয়ে দিচ্ছে আমাদের ডোমেইন fondoftech.com । 

২০১৭ সাল পর্যন্ত পুরো পৃথিবীতে প্রায় ৩৩০ মিলিয়ন এর মত ডোমেইন নাম নিবন্ধন তথা রেজিস্টার করা হয়েছিল। আর ভেরিসাইন এর তথ্য অনুযায়ী ২০১৯ সালের মাঝামাঝি নাগাদ পুরো পৃথিবীতে ৩৫৯ মিলিয়ন ডোমেইন ঠিকানা নিবন্ধিত রয়েছে। 

বিভিন্ন ধরনের ডোমেইন 

টপ লেভেল ডোমেইন নেম (টিএলডি TLD): ১৯৮৫ সালে ডোমেইন নেম প্রবর্তনের শুরু থেকেই ডট কম, ডট নেট, ডট অর্গ ইত্যাদি ডোমেইন নেম প্রচলিত ছিল। আর শুরু দিক থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত সবার জন্য ব্যবহার উপযোগী এই সব ডোমেইনগুলোকে বলা হয় টিএলডি বা টপ লেভেল ডোমেইন। যেমনঃ ডট গভ(.gov),ডট নেট(.net), ডট কম(.com), ডট অর্গ(.org), ডট এডু(.edu), ডট মিল(.mil) ইত্যাদি বর্তমান সময়কার কিছু টপলেভেল ডোমেইন।     

জেনেরিক টপ লেভেল ডোমেইন ( জিটিএলডি gTLD): টিএলডি এর পাশাপাশি ইন্টারনেট এর ব্যবহারকারী দিনে দিনে বারার ফলে আরও নানারককম ডোমেইন নেম এর চাহিদা দিন দিন বাড়তেই থাকল। ডট ইনফো(.info) হল একরকমের জিটিএলডি, সে  সময় তথ্যভিত্তিক ওয়েবসাইটে ডট কম(.com) এর বদলে ডট ইনফো(.info) ব্যবহার করা শুরু হল। তারপর থেকে আসতে আসতে আজকের সময় ডট নিউজ(.news), ডট মিউজিক(.music), ডট এক্সঅয়াইজেইড(.xyz) এর মত আরও শত শত জিটিএলডি ডোমেইন নেম এসেছে। আর আধুনিক সময়কার এসব জিটিএলডি (gTLD) তথা জেনেরিক টপ লেভেল ডোমেইন, ওয়েবসাইটের তথ্যের সাথে ডোমেইন নামের সামঞ্জস্যতায় এনেছে নতুন মাত্রা। যেমন আজকের সময়ে একটি সঙ্গিত বিষয়ক ওয়েবসাইট ডট কম ডত নেট ব্যবহার না করে, ইচ্ছা করলেই তাদের নামের সাথে ডট মিউজিক লাগাতে পাচ্ছে। আবার একটি অনলাইন সংবাদ মাধ্যম তাদের অনলাইন পোর্টালের ডোমেইন নামের শেষে ডট নিউজ লাগাতে পাচ্ছে। জিটিএলডি’কে বলা যায় ডোমেইন নেমের নতুন জেনারেশন। 

কান্ট্রি কোড টপ লেভেল ডোমেইন (সিসি-টিএলডি ccTLD): আমাদের দেশের একটি নিজস্ব সিসিটিএলডি(ccTLD) রয়েছে, আর এটি হচ্ছে ডট বিডি(.bd)। একইভাবে ভারতের ডট ইন(.in), আমেরিকার  ডট ইউএস (.us) আবার যুক্তরাজ্যের ডট ইউকে(.uk)। কোন দেশের পরিচয় বুঝাতে এইসব সিসিটিএলডি ব্যবহার করা হয়।  

ডোমেইন রিসেলার কি? 

তো বোঝাই যাচ্ছে বর্তমান সময়ে ডোমেইন নেম একটি ওয়েবসাইটের আবশ্যিক বিষয়। একটি ওয়েবসাইটের জন্য একটি ডোমেইন নেম থাকা চাইই! এমতাবস্থায় ডোমেইন রিসেলার হতে পারে অনেক লাভজনক একটি ব্যবসা। আপনি ওয়েব হোস্টিং ব্যবসা না করে কেবল ডোমেইন ব্যবসাও করতে পারেন। তবে কজন গ্রাহক যেখান থেকে ডোমেইন কেনে সেখানেই ওয়েবসাইটও হোস্ট করতে চায়, বা যেখানে ওয়েবসাইট হোস্ট করতে চায় সেখান থেকেই ডোমেইন কেনে। ডোমেইন এবং হোস্টিং একে অপরের সাথে সম্পর্কযুক্ত বলে, আপনাকে আপনি এই ব্যবসায় আসতে চাইলে ওয়েব হোস্টিং ব্যবসাকে প্রধান ধরে, ডোমেইন রিসেলারে আসা উচিত।  

আপনি খুব সহজেই বিভিন্ন বড় বড় ডোমেইন নেম রেজিস্টারদের নিকট থেকে ডোমেইন রিসেলার অ্যাকাউন্ট নিতে পারবেন। ডোমেইন রিসেলার হওয়ার জন্য জনপ্রিয় কিছু সাইট হল রিসেলার ক্লাব, গোড্যাডি, ইনোম। আপনি মানসম্মত সার্ভিস পাওয়ার ক্ষেত্রেএই তিনটির ভেতর থেকে যেকোনো একটি বেছে নিতে পারেন। এসব রিসেলার অ্যাকাউন্ট করতে গেলে সাধারণত মিনিমাম ১০ ডলারের মত জমা  দিয়ে অ্যাকাউন্ট করতে হয়। আপনি যত বেশি টাকা জমা দিয়ে রাখবেন; আপনার গ্রাহকরা তত অল্প সময়ে তাদের ডোমেইনটি  একটিভ পাবে। 

ডোমেইন রিসেলার শীর্ষক এই আর্টিকেলটি আমাদের ওয়েব হোস্টিং বিভাগের আওতায় প্রকাশ করা হল।