বিডিআইএক্স : বাংলাদেশের ইন্টারনেট সেতু

বিডিআইএক্স কি

বিডিআইএক্স এর পূর্ণরূপ বাংলাদেশ ইন্টারনেট এক্সচেঞ্জ। আমরা আমাদের বাসায় বা অফিসে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সংযোগ নেয়ার সময় হলেও প্রথম এই বিডিআইএক্স নামটা শুনেছি। আমাদের অনেকের ভেতর এই বিডিআইএক্স ব্যাপারটা পরিস্কার নয়, তাদের জন্য এই লেখাটি কাজে দিবে বলে আশা করছি। বিডিআইএক্স সম্পর্কে জানার আগে চলুন আমরা এইএসপি, এফটিপি সার্ভার এবং এইএক্সপি সম্পর্কে ধারনা নিয়ে আসি। 

আইএসপি 

আইএসপি এর পূর্ণরূপ ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার। আইএসপি হল মূলত একেকটি প্রতিষ্ঠান যারা আমাদেরকে ইন্টারনেট পুরোপুরি ভাবে ব্যবহারের সুযোগ করে দেয়। আইএসপি প্রতিষ্ঠান যে কেবল আপনার বাসায় বা অফিসে ইন্টারনেট সংযোগই দিবে আর কিছু করবেনা, তা হয়না। ইন্টারনেট ট্রানজিট, ডোমেইন নেম রেজিস্ট্রেশন, ওয়েব হোস্টিং, কো-লোকেশন সেন্টার ইত্যাদিও একটি আইএসপি’র কাজ হতে পারে। 

এফটিপি সার্ভার 

এফটিপি হল আইএসপি দের তৈরি করা একটি বিশেষ সার্ভার, যেখানে নানা রকম ফাইল হোস্ট করা থাকে। এফটিপি এর পূর্ণরূপ ফাইল ট্রান্সফার প্রটোকল, আর এটা এমন একটি নেটওয়ার্ক যা ক্লায়েন্ট এবং সার্ভারের মাঝে নানারকম ফাইল আদানপ্রদান করে। আমরা ইন্টারনেট থেকে যখন কোন একটি সিনেমা ডাউনলোড করছি, সেই সিনেমাটি কোননা কোন এফটিপি সার্ভারে হোস্ট করা আছে । আমাদের সেই সিনেমাটি ডাউনলোড করার মাধ্যমে সার্ভার এবং ক্লায়েন্ট হিসেবে আমাদের মধ্য ফাইল আদান প্রদান হল। আর এফটিপি সার্ভারকে বলা যায় একেকটি ‘কন্টেন্ট ডেলিভারি নেটওয়ার্ক’।  

আইএক্সপি 

আইএক্স বা আইএক্সপি মানে হচ্ছে ইন্টারনেট এক্সচেঞ্জ পয়েন্ট। আর এই ‘ইন্টারনেট এক্সচেঞ্জ পয়েন্ট’ হচ্ছে একটি যান্ত্রিক কাঠামো বা বিশাল নেটওয়ার্ক সুইচ; যেখানে আইএসপি এবং কনটেন্ট ডেলিভারি নেটওয়ার্কগুলো তাদের ভেতর নিজেদের ইন্টারনেট ট্রাফিক(দর্শক) এক্সচেঞ্জ করে তথা বিনিময় করে।  আইএক্সপি থাকার সবচেয়ে বড় সুবিধা এরা ব্যান্ডউইথ বাঁচায়। আইএক্সপি ইন্টারন্যাশনাল ব্যান্ডউইথকে লোকাল ব্যান্ডউইথে পরিণত করে।   

বিডিআইএক্স 

বিডিআইএক্স হল বাংলাদেশ এর প্রথম ইন্টারনেট এক্সচেঞ্জ পয়েন্ট। এটা বাংলাদেশ এর সকল আইএসপি এবং কন্টেন্ট ডেলিভারি নেটওয়ার্ক এর জন্য একমাত্র ইন্টারনেট এক্সচেঞ্জ পয়েন্ট। যার মাধ্যমে আমাদের দেশের আইএসপিগুলো নিজেদের ভেতর ট্রাফিক শেয়ার করে।  

বিডিআইএক্স ফন্ডঅফটেক

আমাদের দেশে অনেক আইএসপি রয়েছে। তারা কেউ বাইরে থেকে অপটিক্যাল ফাইবার দিয়ে, কেউ স্যাটেলাইট থেকে আবার কেউ রেডিও সিংনাল এর মাধ্যমে দেশে ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথ নিয়ে আসে। উদাহরন হিসেবে ধরুন আপনি শাপলা আইএসপি এর মাধ্যমে ইন্টারনেট এর সাথে যুক্ত, আবার আপনার বন্ধু সূর্যমুখী আইএসপি এর মাধ্যমে ইন্টারনেট এর সাথে যুক্ত। শাপলা আইএসপি রেডিও সিংনাল এর মাধ্যমে ইন্টারন্যাশনাল ইন্টারনেট এর সাথে যুক্ত, আবার সূর্যমুখী আইএসপি অপটিক্যাল ফাইবারের মাধ্যমে ইন্টারন্যাশনাল ইন্টারনেট এর সাথে যুক্ত । এখন যদি আপনার বন্ধুর সাথে ইন্টারনেট মারফৎ যোগাযোগ করতে যান বা কোন ফাইল পাঠাতে চান তবে হয়ত আপনার ডাটা ওই পুরো ইন্টারন্যাশনাল রুট হয়ে ঘুরে অপটিক্যাল থেকে রেডিও সিংনালে ঘুরে অনেক পথ পাড়ি দিয়ে আসবে। এতে করে কেবল ব্যান্ডউইথ এর অপচয়। 

তবে সূর্যমুখী আইএসপি এবং শাপলা আইএসপি বিডিআইএক্স এর সাথে যুক্ত। এখানে আপনাদের ভেতর ডাটা আদান প্রদানের জন্য ডাটাকে আর ইন্টারন্যাশনাল গেটওয়ে দিয়ে ঘুরে আসতে হচ্ছে না। ব্যাপারটা খুব সহজভাবে হবে বিডিআইএক্স এর নেটওয়ার্ক সুইচএর মাধ্যমে। আর একারনে বিদেশি সার্ভার থেকে আপনি যে গতিতে কোন ফাইল ডাউনলোড করতেন, দেশের বিডিআইএক্স সার্ভার থেকে একই ফাইল ডাউনলোড করতে পারতেন আরও কয়েকগুন বেশি গতিতে। 

অনেক সময় দেখা যায় আমরা জনপ্রিয় বাংলাদেশি বিভিন্ন মুভি সার্ভার থেকে একেকটি সিনেমা ডাউনলোড করি  তখন আমাদের ৩ এম্বিপিএসএর ব্রডব্যান্ড লাইন থাকলেও স্পিড পাই ৬-১০ এমবিপিএস। এটা হয়, কেননা আইএসপিদের তাদের এফটিপি সার্ভার ব্যবহার করার বিষয়ে অনেক শিথিলতা থাকে, তারা এই দিক দিয়ে তাদের ব্যবহারকারীদের সুবিধা দেয়। বিডিআইএক্স এর মাধ্যমে যুক্ত আইএসপি দের ভেতর চুক্তি করা থাকে, আমরা আমাদের নিজেদের এফটিপি সার্ভার গুলো অন্য আইএসপির ব্যবহারকারীদের জন্য আমাদের সার্ভারের সর্বোচ্চ স্পিড দিব, এতে অন্য আইএসপিও আমাদের ব্যবহারকারির জন্য একই স্পিড দিবে। আর এই ব্যাপারটি সফল হয়েছে বিডিআইএক্স এর জন্য। আর এভাবে বিডিআইএক্স এর ফলে ইন্টারনেট এর আদলে অনেক কিছু ইন্ট্রানেট হিসেবে কাজ করে।